বাংলাদেশ সোমবার, ২২ জুলাই, ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

ব্যক্তিগত তথ্য চুরির চেষ্টা, আইফোন ব্যবহারে সতর্কবার্তা

দৈনিক প্রথম সংবাদ ডেস্ক

প্রকাশিত: মার্চ ৩১, ২০২৪, ০৩:৪১ এএম

ব্যক্তিগত তথ্য চুরির চেষ্টা, আইফোন ব্যবহারে সতর্কবার্তা

স্মার্টফোন আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অন্যতম অনুষঙ্গ। অনেকেই মনে করেন অ্যান্ড্রয়েড ফোনের চেয়ে আইফোন বেশি সুরক্ষিত। তাইতো বর্তমানে আইফোনের জনপ্রিয়তাও বেশ। তবে অ্যাপল গ্রাহকরা নতুন ধরনের অনলাইন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন, যেখানে স্ক্যামাররা তাদের ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করার চেষ্টা করছে।

এই স্ক্যামাররা নতুন কৌশল ব্যবহার করে গ্রাহকদের অ্যাপলের অ্যাকাউন্ট অ্যাক্সেস করার জন্য প্রতারণা করছে, যা তাদের ডিভাইস এবং ডাটার নিয়ন্ত্রণ হারানোর মতো গুরুতর সমস্যার কারণ হতে পারে।

এক্ষেত্রে স্ক্যামাররা ব্যবহারকারীদের এমন ই-মেইল বা মেসেজ পাঠায় যা দেখে মনে হয় সেগুলো অ্যাপলের থেকে এসেছে। ব্যবহারকারীদের কাছে দাবি করা হয় আপনার অ্যাকাউন্ট বিপদে রয়েছে এবং দ্রুত মনোযোগ দেওয়া প্রয়োজন। প্রতারকরা ব্যবহারকারীদের আতঙ্কিত করে এবং দ্রুত কাজ করার জন্য ভীতিকর বার্তা দেয়।

সম্প্রতি এক প্রতিবেদন বলা হয়, অনেকেই এই ফাঁদে পা পেলে এবং মেসেজটিতে ক্লিক করার পর ব্যবহারকারীদের একটি জাল ওয়েবসাইটের দিকে পরিচালিত করা হয় যা দেখতে ঠিক অ্যাপলের অফিসিয়াল সাইটের মতো। যেখানে ব্যবহারকারীর নাম এবং পাসওয়ার্ডসহ তাদের লগইন তথ্য লিখতে বলা হয়। যার ফলে ব্যবহারকারীর নিজের অজান্তেই তাদের মূল্যবান তথ্য স্ক্যামারদের হাতে তুলে দেন।

তবে প্রতারণা সেখানেই থামে না। কিছু ভুক্তভোগী তাদের অ্যাপল ডিভাইসে নোটিফিকেশনের বন্ধ হওয়ার কথা জানিয়েছেন, যা তাদের পাসওয়ার্ড রিসেট বা লগইন করতে বলছে। এতে ডিভাইস ব্যবহার প্রায় অসম্ভব হয়ে ওঠে।

স্ক্যামাররা তখন ব্যবহারকারীকে ফোন করে অ্যাপল সাপোর্টার দাবি করে বলেন, আপনার অ্যাকাউন্ট হ্যাকারের অধীনে রয়েছে এবং এটি রক্ষা করার জন্য তাদের কিছু তথ্য যাচাই করতে হবে। এর জন্য তারা স্পুফড কলার আইডি ব্যবহার করে।

ভিকটিমদের আস্থা অর্জনের জন্য স্ক্যামাররা PeopleDataLabs-এর মতো উৎস থেকে প্রাপ্ত ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করে। এই তথ্য ব্যবহার করা হলে ব্যবহারকারীরা তা বৈধ বলে মনে করেন।

এই স্ক্যামের কথা এক ব্যবহারকারী তার সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন। অ্যাপল সাপোর্টার বলে দাবি করে এমন একজনের কাছ থেকে তিনি ফোন কল পান। তার আগে অবশ্য তার ফোনে প্রচুর নোটিফিকেশন আসতে শুরু করে। এই স্ক্যামারদের চূড়ান্ত লক্ষ্য হলো টেক্সট মেসেজের মাধ্যমে তাদের ডিভাইসে পাঠানো কোড চাওয়া। সফল হলে, স্ক্যামাররা ভিকটিমের অ্যাপল আইডি পাসওয়ার্ড রিসেট করতে এবং সম্ভাব্য ভাবে তাদের অ্যাকাউন্টের নিয়ন্ত্রণ নিতে এই কোডটি ব্যবহার করে।

জেনে নিন সুরক্ষার উপায়
কোনো অপরিচিত ই-মেইল বা মেসেজকে অ্যাপেল থেকে পাঠানো বলে মনে না করা। সর্বদা প্রেরকের ই-মেইল আইডি বা যে ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে বলা হয় তার ইউআরএল (URL) চেক করা৷ যদি কিছু সন্দেহজনক বলে মনে হয় তবে এর থেকে দূরে থাকা। মনে রাখতে হবে, অ্যাপল কখনই ফোনে বা ই-মেইলের মাধ্যমে ব্যক্তিগত তথ্য বা পাসওয়ার্ড দিতে বলা হয় না।

Link copied!

সর্বশেষ :