বাংলাদেশ বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

এফডিসিতে সাংবাদিক ও ইউটিউবারদের মেরে রক্তাক্ত করলেন শিল্পীরা

দৈনিক প্রথম সংবাদ ডেস্ক

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৩, ২০২৪, ১১:৩৪ পিএম

এফডিসিতে সাংবাদিক ও ইউটিউবারদের মেরে রক্তাক্ত করলেন শিল্পীরা

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মারামারিতে অংশ নেন- অভিনেতা শিবা শানু, জয় চৌধুরী ও আলেকজান্ডার বো।

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নব-নির্বাচিত কমিটির শপথ অনুষ্ঠানে শিল্পীদের হাতে মারধরের শিকার হয়েছেন কয়েকজন সাংবাদিক ও ইউটিউবার। 

তাদের মারধরে অন্তত ১০ জন সাংবাদিক ও ইউটিউবার আহত হয়েছেন। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনে (এফডিসি) এই ঘটনা ঘটে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, অভিনেতা শিবা শানু, শিল্পী সমিতির নবনির্বাচিত সাংগঠনিক সম্পাদক জয় চৌধুরী ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আলেকজান্ডার বো এই মারধরের ঘটনায় নেতৃত্ব দিয়েছেন। 

তবে শিবা শানু বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেছেন, মারামারিতে জড়ানোর কারণ রয়েছে। 

কেন মারামারি করলেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, “আমি এখন কিছু বলব না। অগ্রজ চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব এবং সিনিয়র সাংবাদিকদের নিয়ে একটা তদন্ত কমিটি হয়েছে। তাদের কাছেই আমি আগে আমার ব্যাখ্যা দেব। এখন আমি শুধু বলব, এক হাতে তালি বাজে না।” 

অভিনেতা জয় চৌধুরী ও আলেকজান্ডারকে একাধিক ফোন করা হলেও তারা কল রিসিভ করেননি। 

গত ১৯ এপ্রিল এফডিসিতে অনুষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদের নির্বাচন। এই নির্বাচনে বিজয়ী হন মিশা-ডিপজল প্যানেলের সদস্যরা। বিজয়ী কমিটির সদস্যদের মঙ্গলবার বিকালে এফডিসিতে শপথ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 

চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি কাজী হায়াত নবনির্বাচিত সভাপতি মিশা সওদাগরকে শপথবাক্য পাঠ করান। পরে নিয়ম অনুযায়ী সভাপতি মিশা সওদাগর কমিটির অন্য সকল সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান। 

শপথ অনুষ্ঠানের পরপরই শিল্পী সমিতির কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে কিছু সাংবাদিক ও ইউটিউবারের তর্ক শুরু হয়, যা পরে হাতাহাতিতে রূপ নেয়। এ সময় চেয়ার ছোড়ার ঘটনাও ঘটে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। মারামারিতে অংশ নেন- শিবা শানু, জয় চৌধুরী ও আলেকজান্ডার বো। 

এ সময় দৈনিক খবরের কাগজের বিনোদন প্রতিবেদক মিঠুন আল মামুন, বাংলাভিশনের ক্যামেরাপারসনসহ ১০ জনের মতো সংবাদকর্মী ও ইউটিউবার আহত হন। 

আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। 

এই ঘটনাকে দুঃখজনক এবং অনাকাঙ্ক্ষিত বলে মন্তব্য করেছেন শিল্পী সমিতির নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করা খোরশেদ আলম খসরু। 

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “আমি সেখান থেকে চলে আসছিলাম। পরে শুনেছি, সাংবাদিকদের মারধর করা হয়েছে।

“নির্বাচনে বিজয়ী হতে না হতেই যদি এই অবস্থা হয়, সেটা খুবই লজ্জাজনক এবং দুঃখজনক। অনাকাঙ্ক্ষিত এই ঘটনার জন্য আমি ব্যক্তিগতভাবে লজ্জিত। এটা শিল্পীদের আচরণ হতে পারে না।”

Link copied!

সর্বশেষ :