বাংলাদেশ বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১

আয়ুর্বেদিক উদ্ভিদ তুলসী পাতার অসাধারণ গুণ জেনে নিন

লাইফস্টাইল ডেস্ক

প্রকাশিত: মে ১৯, ২০২৪, ০৬:১৪ পিএম

আয়ুর্বেদিক উদ্ভিদ তুলসী পাতার অসাধারণ গুণ জেনে নিন

তুলসী একটি আয়ুর্বেদিক উদ্ভিদ।

তুলসী একটি আয়ুর্বেদিক উদ্ভিদ। চায়ের স্বাদ এবং গন্ধ উন্নত করে। তাছাড়া তুলসি আপনাকে বিভিন্ন রোগ থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে। আধুনিক ওষুধের আবির্ভাবের আগে, মানুষ ভেষজ ওষুধের উপর নির্ভর করত।এ ছাড়া ভেষজ রাণী হিসেবে পরিচিত তুলসী পাতা।
বিশেষজ্ঞদের মতে, ‘তুলসীতে ফ্ল্যাভোনয়েড, পলিফেনল এবং অপরিহার্য তেলের মতো যৌগ রয়েছে যা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে। এই অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলো শরীরের ক্ষতিকারক ফ্রি র‌্যাডিকেলগুলোকে নিরপেক্ষ করতে সহায়তা করে, যার ফলে অক্সিডেটিভ স্ট্রেস হ্রাস পায় এবং কোষগুলোকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে।’

জেনে নেয়া যাক তুলসী পাতার গুণ সম্পর্কে-
১. রোগ প্রতিরোধ: তুলসীর ইমিউনোমোডুলেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে বলে জানা যায়। যার মানে এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করতে পারে। আপনি যদি নিয়মিত তুলসী পানি পান করেন, তাহলে আপনার ইমিউন সিস্টেমকে শক্তিশালী করতে এবং শরীরকে সংক্রমণের জন্য আরও স্থিতিস্থাপক করতে সাহায্য করতে পারে।

২. হজমশক্তির উন্নতি ঘটায়: বিশেষজ্ঞরা বলছেন, "তুলসির অ্যান্টি-ফ্ল্যাটুলেন্স বৈশিষ্ট্য হজমে সাহায্য করতে পারে এবং গ্যাস এবং ফোলাভাব কমাতে পারে।" তুলসীর রস পান করলে হজম প্রক্রিয়া প্রশমিত হয় এবং হজমে সাহায্য করে। তুলসীর রস পান করা শরীর থেকে টক্সিন এবং ব্যাকটেরিয়া দূর করতেও সাহায্য করে। এটি বদহজম প্রতিরোধে সাহায্য করে।

৩. স্ট্রেস কমায়: তুলসিকে একটি অভিযোজনীয় ভেষজ হিসাবে বিবেচনা করা হয়, যার অর্থ এটি শরীরকে চাপের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে এবং শান্ত এবং শিথিলতার অনুভূতি প্রচার করতে সহায়তা করতে পারে। তুলসীর জল পান করলে তা মানসিক চাপ ও উদ্বেগ কমাতে সাহায্য করে।
 

৪. শ্বাসযন্ত্রের স্বাস্থ্য: তুলসী ঐতিহ্যগতভাবে কাশি, সর্দি এবং হাঁপানির মতো শ্বাসকষ্ট দূর করতে ব্যবহৃত হয়। এ ছাড়া তুলসী পানি পান করা শ্বাসযন্ত্রের উপর প্রশান্তিদায়ক প্রভাব ফেলতে পারে এবং শ্বাসযন্ত্রের অস্বস্তি থেকে মুক্তি দেয়। তুলসিতে শক্তিশালী কফের ওষুধ এবং অ্যান্টিটিউসিভ বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা কফের উপসর্গ, জ্বালাপোড়া এবং সর্দি-কাশির লক্ষণগুলিকে মূল থেকে দূর করতে সাহায্য করে।

৫. প্রদাহ কমায়: তুলসীর অপরিহার্য তেলের প্রদাহরোধী বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এটি প্রদাহ এবং এর সাথে সম্পর্কিত উপসর্গ কমাতে সাহায্য করে।

Link copied!

সর্বশেষ :