বাংলাদেশ শনিবার, ২০ জুলাই, ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১

তাপপ্রবাহ ৭৬ বছরের রেকর্ড ভাঙ্গল চুয়াডাঙ্গায় তাপমাত্রা ৪২.৭ ডিগ্রি

জেলা প্রতিনিধি,চুয়াডাঙ্গা

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৬, ২০২৪, ১০:৫২ পিএম

তাপপ্রবাহ ৭৬ বছরের রেকর্ড ভাঙ্গল চুয়াডাঙ্গায় তাপমাত্রা ৪২.৭ ডিগ্রি

চুয়াডাঙ্গায় তাপমাত্রা ৪২.৭ ডিগ্রি

দেশের পশ্চিমাঞ্চল চুয়াডাঙ্গায় অস্বাভাবিক তাপপ্রবাহ চলছে। শুক্রবার এই অঞ্চলের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪২.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছে। জাপানের আবহাওয়া সংস্থার মতে, বিকেল ৩টায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। এ বছর দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

আবহাওয়া অধিদফতরের বিশেষজ্ঞ শাহীনুল ইসলাম জানান, এ বছর দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪২ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং রেকর্ড করা হয়েছে চুয়াডাঙ্গায়।

চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া অধিদফতরের কর্মকর্তা জামিনুর রহমান জানান, চুয়াডাঙ্গা অঞ্চলে কয়েকদিন ধরেই প্রচণ্ড তাপদাহ চলছে। এপ্রিলের শেষ দিনগুলোতে এ অঞ্চলে তাপমাত্রা বৃদ্ধি অব্যাহত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। জামিনুর রহমান জানান, মৌসুমের শুরু থেকেই চুয়াডাঙ্গার আবহাওয়া কিছুটা গরম। এই জেলায় তাপপ্রবাহ ক্রমশ তীব্র থেকে তীব্রতর হয়েছে। এছাড়া গরমের কারণে অস্বস্তি ও দুর্ভোগ বেড়েছে।

জাপানের আবহাওয়া সংস্থার মতে, ৩৬ ডিগ্রি থেকে ৩৮ ডিগ্রি তাপমাত্রা একটি মৃদু তাপপ্রবাহ, ৩৮ ডিগ্রি থেকে ৪০ ডিগ্রি একটি মাঝারি তাপপ্রবাহ এবং ৪০ ডিগ্রি থেকে ৪২ ডিগ্রি এটি তীব্র তাপপ্রবাহ। ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াসকে তীব্র তাপপ্রবাহ বলা হয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জলবায়ু সংক্রান্ত তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যায় যে সাম্প্রতিক দশকগুলোতে বাংলাদেশে তাপমাত্রা বৃদ্ধি এবং স্থিতিশীলতা বেড়েছে। এই তাপপ্রবাহ সম্পর্কে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, উচ্চ আর্দ্রতার কারণে বাংলাদেশ আসলে তার চেয়ে ৪-৫ ডিগ্রি বেশি গরম। এতে গরমে মানুষ অস্বস্তি বোধ করে।

আবহাওয়া অফিস বলছে, গত ৭৬ বছরের তুলনায় এই এপ্রিলে টানা বেশি তাপপ্রবাহের দিন হয়েছে। গত বছর টানা ১৬ দিন গরম ছিল। তাপপ্রবাহ 1 এপ্রিল থেকে শুরু হয়েছিল এবং টানা ২৩ দিন ধরে চলেছিল।

আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক বলেন, চলতি মাসে তাপপ্রবাহ ২৩ দিন স্থায়ী ছিল। শুক্রবার, ১৯৪৮ সাল থেকে দৈনিক তাপপ্রবাহের রেকর্ড ভেঙে গেছে।

Link copied!

সর্বশেষ :